Home / চাঁদপুর / ‘আওয়ামী লীগের শাসন-শোষণ, নির্যাতন লাগামহীন হয়ে উঠেছে’

‘আওয়ামী লীগের শাসন-শোষণ, নির্যাতন লাগামহীন হয়ে উঠেছে’

লেখক ও সাংবাদিক মুশতাক আহমেদ এবং সাংবাদিক বোরহানউদ্দিন মুজাক্কির হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল করেছে চাঁদপুরে জেলা স্বেচ্ছাসেবক দল।

৬ মার্চ শনিবার বিকেলে নবগঠিত চাঁদপুর জেলা স্বেচ্ছাসেদক দলের আহ্বায়ক হযরত আলী ঢালী ও সদস্য সচিব কাজী মোহাম্মদ ইব্রাহীম জুয়েলের নেতৃত্বে শহরের শপথ চত্তর এলাকা থেকে এ বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। শত শত নেতাকর্মীর স্বতঃফুত অংশগ্রহণে স্লেগানে স্লেগানে মুুখরিত বিক্ষোভ মিছিলটি শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে চাঁদপুর জেলা বিএনপি কার্যালয়ের সামনে এসে শেষ হয়।

পরে জেলা স্বেচ্ছাসেদক দলের আহ্বায়ক হযরত আলী ঢালীর সভাপতিত্বে ও সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক সোলায়মান ঢালীর পরিচালায় বক্তব্য রাখেন, সদস্য সচিব কাজী মোহাম্মদ ইব্রাহীম জুয়েল, যুগ্ম-আহ্বায়ক মেরাজ আহমেদ চোকদার, ইখতিয়ার উ‌দ্দিন শিশু, মাসুদ মাঝি, কামরুজ্জামান হাসানাত, খোকন মিজি, শামছুল আলম সূর্য, সামছুল আরেফিন খান, ইয়াকুব বিন ছায়েদ লিটন, মো. অ‌লি আহমেদ।

বক্তারা বলেন, ‘জনতার ভোট ছাড়া গঠিত আওয়ামী লীগের শাসন-শোষণ, নির্যাতন লাগামহীন হয়ে উঠেছে। তাদের অপকর্মের বিরুদ্ধে কলম ধরায় সাংবাদিক ও লেখক মুশতাক আহমেদকে জেল খানায় মরতে হয়েছে। মুশতাক আহমেদের মৃত্যুর জন্য ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন দায়ী৷ তাই অবিলম্বে এ আইন বাতিল করার দাবি জানাচ্ছি।’

বক্তারা বলেন, নোয়াখালী জেলার কোম্পানীগঞ্জে আ’লীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষের পেশাগত দ্বায়িত্ব পালনের সময় সাংবাদিক বোরহান উদ্দিন মুজাক্কিকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। আমরা এই নির্মম হত্যার ধিক্কার এবং তীব্র প্রতিবাদ জানাই। একজন সাংবাদিকে এমন নির্মমভাবে হত্যা করা মানে গোটা গণমাধ্যমের টুঁটি চেপে ধরা। এই সরকার গণতন্ত্র, মানুষের ভোটের অধিকার, মুক্তভাবে কথা বলার অধিকারের টুঁটি চেপে ধরেছে। তাই অবিলম্বে এই সকারকে অবৈধ ক্ষমতার মশনদ থেকে টেনে নামাতে হবে।

বক্তারা আরো বলেন, ঢাকায় আন্দোলন শুরু হয়ে গেছে। সারা বাংলাদেশে সে আন্দোলনের ঢেউ উঠেছে। চাঁদপুরে শেখ ফরিদ আহমেদ মানিকের নেতৃত্বে কঠিন আন্দোলন গড়ে তোলা হবে। সেই আন্দোলনে শহীদ জিয়ার আদর্শের সৈনিক সকল নেতাকর্মীদের অংশগ্রহণ করার অহ্বান করছি।

প্রতিবেদকঃআশিক বিন রহিম,৬ মার্চ ২০২১