Home / উপজেলা সংবাদ / কচুয়া / অধ্যক্ষ ইমদাদুল হক আর নেই

অধ্যক্ষ ইমদাদুল হক আর নেই

মতলব রয়মনেন নেছা মহিলা ডিগ্রি কলেজের প্রাক্তন অধ্যক্ষ ও মতলব ডিগ্রি কলেজের বাংলা বিভাগের প্রাক্তন সহকারী অধ্যাপক মোঃ ইমদাদুল হক আমাদের মাঝে বেঁচে নেই। ৪ নভেম্বর বুধবার বিকাল সাড়ে ৩ টায় ঢাকা তাঁর ছোট ছেলে শিপুর বাসায় ইন্তেকাল করেছেন ( ইন্না লিল্লাহি… রাজেউন) মৃত্যকালে বয়স হয়েছিল ৬৭ বছর।

মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী,২ ছেলে, ১ মেয়েসহ অসংখ্য আত্বীয়- স্বজন, সহকর্মী ও গুনীগ্রাহী রেখে গেছেন। তাঁর মৃত্যুর সংবাদটি মতলবে পৌছালে সর্বত্র শোকের মাতম নেমে আসে।

ইমদাদুল হক চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলার মাঝিগাচা গ্রামের মরহুম হাজী মোঃ ছায়েদ আলী প্রধানীয়া ও মাতা মরহুম হাছন বানুর ছেলে। ইমদাদুল হক বিগত ১৯৫৩ সালের পহেলা জানুয়ারি সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহন করেন। তিনি ১৯৬৮ সালে দ্বিতীয় বিভাগে এসএসসি,১৯৭০ সালে দ্বিতীয় বিভাগে এইচ এসএসসি, ১৯৭৩ সালে বিএঅনার্স( বাংলা),১৯৭৪ সালে এমএ ( বাংলা) পাশ করেন।

শিক্ষকতা জীবনে অভিজ্ঞতা: শাহতলী চিচতী কলেজে ১০/০৮/ ১৯৭৬ সাল থেকে ০৬/০৭/১৯৭৭ সাল পর্যন্ত প্রভাষক পদে, মতলব ডিগ্রি কলেজে ১৯৭৭ সালের ৮ জুলাই বাংলা বিভাগে প্রভাষক হিসেবে যোগদান করেন এবং ১৯৮৫ সালের ৫ মার্চ বাংলা বিভাগে সহকারী অধ্যাপক হিসেবে পদোন্নতি লাভ করে এবং সর্বমোট ২৫ বছর এ কলেজে শিক্ষকতা করেন।২০০৩ সালের ২৩ জুলাই রয়মনেন নেছা মহিলা ডিগ্রি কলেজে অধ্যক্ষ হিসেবে যোগদান করেন এবং সরকারী নিয়ম অনুযায়ী ২০১৩ সালের, ৩০ নভেম্বর অবসর গ্রহন করেন। পরবর্তীতে রয়মনেন নেছা মহিলা ডিগ্রি কলেজের গভঃবডির সিদ্ধান্ত মোতাবেক এবং জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অফিস আদেশ অনুযায়ী অধ্যক্ষ হিসেবে আরো ২ বছর চাকুরী করেন।

তিনি ২০১৬ সালের ১০ এপ্রিল থেকে কুমিল্লার আল- মানার একাডেমি, নশ্বিপুর, নৈয়াইর, দাউদকান্দিতে অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। পরবর্তীতে শারিরীক সমস্যার কারনে ২০১৭ সালের ১৫ এপ্রিল অব্যাহতি নেন। এছাড়া তিনি মতলব উত্তরের লুধুয়া স্কুল এন্ড কলেজে এক বছর অধ্যাপনা করেছেন এবং মতলব দারুল উলুম সিনিয়র মাদ্রাসায় ৩ বছর অধ্যাপনা করেছেন

সামাজিক ও প্রাতিষ্ঠানিক কর্মকান্ডঃ মতলব ডিগ্রি কলেজে র মুসলিম ছাত্রাবাসের ১৬ বছর দায়িত্ব পালন,মতলব ডিগ্রি কলেজের ” পরিবেশ উন্নয়ন” কমিটির দায়িত্ব পালন করেছেন ১৫ বছর, অত্র কলেজের শিক্ষক কর্মচারী কল্যাণ পরিষদের সম্পাদক হিসেবে ৪ বছর দায়িত্ব পালন করেছেন, রয়মনেন নেছা মহিলা ডিগ্রি কলেজে ছাত্রী নিবাসে প্রতিদিন সন্ধাকালীন সময়ে পরিদর্শন করে লেখাপড়ার মান উন্নয়নে সক্রিয় ভুমিকা পালন করেন,১৯৮৫ সালে মতলব থানার শ্রেষ্ঠ কলেজ শিক্ষক সনদ পেয়েছেন, মাঝিগাছা এম মবিন উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি হিসেবে ৩ বছর দায়িত্ব পালন করেছেন। পূর্ব মাঝিগাছা আল-আকসা জামে মসজিদ এর প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন।

প্রতিবেদক:মাহফুজ মল্লিক,৪ নভেম্বর ২০২০