Home / আরো / নারী / ‍‘বড় ছেলে‍‍’ নাটক থেকে যা যা পেল দর্শকেরা

‍‘বড় ছেলে‍‍’ নাটক থেকে যা যা পেল দর্শকেরা

গেল ঈদুল ফিতর থেকেই ফের জমজমাট হয়ে উঠেছে ছোট পর্দার ঈদ। অন্ত বড় পর্দার চেয়ে ঈদের সময়টায় এখন মানুষ বেশী ঝুঁকছে ছোট পর্দার দিকে। ভালো গল্প, নির্মাণ দিয়ে মোটামুটি তুষ্ট করার মতো বেশ কিছু নাটক ঈদকে উপলক্ষ্য করে তৈরি হচ্ছে।

গেল ঈদে সবার আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে মধ্যবিত্ত পরিবারের গল্পে নির্মিত ‘বিকাল বেলার পাখি’ নাটকটি। আর এবারও ঈদুল আযহায় তুমুল দর্শকপ্রিয়তার তালিকায় আছে মধ্যবিত্ত পরিবারের গল্পে নির্মিত মিজানুর রহমান আরিয়ানের ‘বড় ছেলে’ নামের নাটকটি। এরইমধ্যে নাটকটি ছোট পর্দার ইতিহাসে নামও লেখিয়ে ফেলেছে।

কী ছিল এই নাটকে? খুবই সাধারণ একটি মধ্যবিত্ত জীবনের গল্প নিয়ে নাটকটি রচনা করেছেন নির্মাতা নিজেই। নাটকের গল্পে এসেছে মধ্যবিত্ত জীবনের গতানুগতিক একটি গল্প। এর বাইরে মূল বিষয় ছিল একটি মধ্যবিত্ত পরিবারের ‘বড় ছেলে’র রোল। বড় ছেলে কি কি স্যাক্রিফাইস করতে পারে কিংবা করতে হয়। এ গল্পই সব ধরনের দর্শককে আকর্ষণ করেছে।

টেলিভিশন চ্যানেল দর্শকদের অনুরোধে নাটকটি পরপর তিনি পুনরায় প্রচারের সিদ্ধান্ত নেয় এবং প্রচারিত হয়। এই নাটকের মাধ্যমে দর্শক কী পেয়েছে? গল্পটি একান্তই আপন একটি খুব কাছের একটি গল্প। আমাদের খুব নিকট দিয়ে যাওয়া বস্তুটিকে হয়তো আমরা দেখতে পারি না। নির্মাতা এই বিষয়টিই দেখানোর চেষ্টা করেছেন এবং বলা যায় তিনি সফল হয়েছেন।

পরিবারের বড় ছেলেদের নানা দায়িত্ব থাকে। বাবার পরেই সংসারের হাল বড় ছেলেকে ধরতে হয়। এখানে পাওয়া না পাওয়ার অনেক বিষয় থাকে। তারপরেও বড়ছেলেকে নিজের দায়িত্ব পালনে সর্বোচ্চ চেষ্টা করে যেতে হয়। প্রয়োজনে অনেক স্যাক্রিফাইসও করতে হয়। এই নাটকে বড় স্যাক্রিফাইস দেখিয়েছেন অপূর্ব। নিজের চাকরি না হওয়ায় শুধু পরিবারের কথা ভেবে প্রেমিকাকে বিসর্জন দিয়েছেন।

নাটকে চমৎকার একটি গান পেয়েছে দর্শকেরা। বলা যায় দর্শকেরা এখন ‘বড় ছেলে’ নাটকে ব্যবহৃত গানের বড় শ্রোতা। শহরে বন্দরে, বাসা বাড়িতে এখন ‘এই ঠুনকো জীবনে তুমি কাচের দেয়াল…’ বেজে যাচ্ছে। এই গানের মাধ্যমে কণ্ঠশিল্পী মিফতা জামান নতুন একটি বড় ধরনের শ্রেণির কাছে পরিচিতি পেয়েছেন। গানের সুরকার ও সঙ্গীত আয়োজন করেছেন সাজিদ সরকার। লিখেছেন, সোমেশ্বর অলি।

‘বড় ছেলে’ নাটকে মেহজাবিনকে অভিনেত্রী হিসেবে খুঁজে পেয়েছেন দর্শকেরা। মেহজাবিনের অভিনয়ের বিষয়ে যারা সন্দিহান ছিলেন, তাঁদের সেই সন্দেহ দূর হয়ে গেছে। বলা যায় মেহজাবিনের অভূতপূর্ব অভিনয়ে দর্শকেরা মুগ্ধ। এই অল্প কথাতে মেহজাবিনের প্রাপ্য কৃতিত্ব দেয়া হবে না। মেহজাবিনের কান্না অজস্র দর্শকের চোখে কান্না এনেছে। মেহজাবিন নিজে কেঁদেছেন, কাঁদিয়েছেন স্ক্রিনের সামনের মানুষদের।

নির্মাতারা সাধারণ নাটকের পেছনের মানুষ। ‘বড় ছেলে’ নাটকের মাধ্যমে মিজানুর রহমান আরিয়ান পরিচিতি পেয়েছেন একটি নতুন শ্রেণির নিকট, যারা নির্মাতা সম্পর্কে তেমন মাথা ঘামাতেন না। দর্শকের সমান প্রশংসা পেয়েছেন নির্মাতা আরিয়ান।

নিউজ ডেস্ক
: আপডেট, বাংলাদেশ ১১ : ৫০ পিএম, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ সোমবার
এইউ

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

নেতাকর্মীদের প্রশ্নের জবাবে যা বললেন খালেদা

লন্ডন ...