Home / শীর্ষ সংবাদ / হাজীগঞ্জে চিরকুট রেখে প্রবাসীর স্ত্রী উধাও

হাজীগঞ্জে চিরকুট রেখে প্রবাসীর স্ত্রী উধাও

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ উপজেলায় সংসার ভাঙার মিছিলে যুক্ত হলো আরেক নারী। এ উপজেলায় গত ৭ মাসে শতাধিক নারী অজানার উদ্দেশ্যে পাড়ি জমিয়েছেন।

সেই আতঙ্ক না কাটতেই চিরকুট লিখে আরেক প্রবাসীর স্ত্রী দু’সন্তানের জননী হালিমা আক্তার পুতুল (২৮) একই পথে হাঁটলেন। এ ঘটনায় উভয় পরিবার হাজীগঞ্জ থানায় অভিযোগ করেছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ১০ বছর আগে উপজেলার ৬নং বড়কুল পূর্ব ইউপির সেন্দ্রা পাটোয়ারী বাড়ির তাফাজ্জল পাটোয়ারীর মেয়ে হালিমা আক্তার পুতুলকে বিয়ে দেয়া হয়।

ওই সময় একই উপজেলার রায়চোঁ গ্রামের পতন আলী ফকির বাড়ির মনু মিয়ার ছেলে আবু ছায়েদ ধুম-ধাম করে পুতুলকে বিয়ে করেন।

এভাবে সুখে শান্তিতে কাটছিল তাদের সংসার জীবন। পরে সংসারের ঘানি টানতে আবু ছায়েদ সৌদিআরবে পাড়ি জমান। স্ত্রী-সন্তানদের দেখভাল করতে প্রায় উড়ে আসতেন দেশে।

এরই মধ্যে তাদের পরিবারে আসে দুটি ছেলে সন্তান। দীর্ঘ ১০ বছর তাদের দাম্পত্য জীবনে সুবাতাস বইলেও এর মধ্যে উভয়ে একে অপরকে সন্দেহ করে।

এই সন্দেহের মাত্রা একপর্যায়ে ঝগড়ায় রুপ নেয়। এরই মধ্যে পুতুলের মনে অভিমান না পরকীয়া বিষয়টি কেউ টের না পেতে স্বামীর ঘরে একটি চিরকুট লিখে পালিয়ে যান পুতুল।

গত বুধবার বাড়ি থেকে যাওয়ার সময় পুতুল একটি চিরকুট লিখেন যাতে লিখা রয়েছে, ‘ছায়েদ আপনার কথার পর আমি এখানে আর থাকব না। আমার ছেলেদের রেখে গেলাম। আমার ছেলেদের দিকে খেয়াল রেখো।’ এভাবে অল্প কথায় একটি চিরকুট লিখে ১০ বছরের সংসার জীবনের ইতি টানেন তিনি।

স্থানীয়রা বলছেন, পুতুলের খোঁজ মিললে আসল বিষয়টি জানা যাবে। এটি অভিমান নাকি পরকীয়া এখনও নিশ্চিত করতে পারেনি কেউ।

নিউজ ডেস্ক /strong>
: আপডেট, বাংলাদেশ ০৯ : ৪২ পিএম, ১ সেপ্টম্বর ২০১৭, শুক্রবার
এইউ

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

লক্ষ্যমাত্রার চেয়েও ইলিশ উৎপাদন বাড়ার সম্ভাবনা

নদ-নদীর ...