Home / জাতীয় / জাতিসংঘের প্রতি কড়া নিন্দা জানালো টিআইবি
UNO United-Nation Organization - Jati Songo

জাতিসংঘের প্রতি কড়া নিন্দা জানালো টিআইবি

মিয়ানমারের রাখাইনে দেশটির সেনাবাহিনী রোহিঙ্গাবিরোধী অভিযান শুরু করতে পারে বলে সতর্কতা পেয়েও এই সংকট এড়াতে ব্যর্থ হওয়ায় জাতিসংঘের কড়া নিন্দা করেছে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)।

রোববার (৮ অক্টোবর) দুর্নীতিবিরোধী সংস্থাটির নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামানের দেওয়া এক বিবৃতিতে এই নিন্দা জানানো হয়।

এতে বলা হয়, ‘রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে মিয়ানমার সেনাবাহিনী ‘কঠোর ও নির্বিচার’ পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছে বলে চলতি বছরের মে মাসে জাতিসংঘের একটি কমিশনের প্রতিবেদনে পূর্বাভাস দেওয়া হয়, যে আভাস আগস্ট-সেপ্টেম্বরে সত্য প্রমাণ হয়। এই পূর্বাভাস পেয়েও জাতিসংঘ তা অবজ্ঞা করেছে, একইসঙ্গে ধামাচাপা দিয়েছে। তাদের এই ভূমিকায় টিআইবি চরমভাবে হতাশ।’

ওই কমিশনের সুস্পষ্ট সুপারিশ পেয়েও তা ইচ্ছেকৃতভাবে আড়াল করাকে বিশ্ব সংস্থাটির ‘অগ্রহণযোগ্য অপরাধ’ আখ্যা দিয়ে টিআইবির পক্ষ থেকে বলা হয়, তাদের ভূমিকার কারণেই মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন ঠেকানো যায়নি।

বিবৃতিতে ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেন, আমরা জাতিসংঘের কাছে এই নিষ্ক্রিয়তার ব্যাখ্যা চাইছি, বিশেষত তারা যেটা প্রচার করে বেড়ায় তা না করতে পারার কারণ সম্পর্কে। কেউই জবাবদিহির ঊর্ধ্বে নয়, এমনকি জাতিসংঘও নয়।

মে মাসে দেওয়া জাতিসংঘের কমিশনের ওই প্রতিবেদন মানুষের জানার জন্য প্রকাশের দাবি জানিয়ে বিবৃতিতে বলা হয়, পূর্ব পরিকল্পিত এবং ভয়ঙ্কর মানবাধিকার লঙ্ঘন ঠেকানোর সুযোগ থাকলেও যাদের কারণে এমন পদক্ষেপ নেওয়া যায়নি তাদের শাস্তি দিতে হবে।

জাতিংঘের নিজেরই আখ্যা দেওয়া ‘জাতিগত নিধনযজ্ঞ’ বন্ধের সুযোগ পেয়ে তা হারানোর জন্য দায়ী এমন গুরুত্বপূর্ণ প্রতিবেদন ধামাচাপা দেওয়ার পেছনের কারণ ব্যাখ্যা করার সাহস জাতিসংঘের থাকা উচিত বলেও মন্তব্য করা হয় বিবৃতিতে।

সম্প্রতি যুক্তরাজ্যের একটি সংবাদমাধ্যমে বলা হয়, রাখাইনে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে জাতিগত নিধনযজ্ঞের আলামত পেয়ে এ সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদন জমা দেয় জাতিসংঘেরই গঠিত একটি কমিশন। কিন্তু ওই প্রতিবেদনটি ধামাচাপা দিয়ে জাতিসংঘ তা এড়িয়ে যায় বলেও সংবাদমাধ্যমটির খবরে বলা হয়।

বিভিন্ন সংস্থার হিসাব অনুযায়ী, মিয়ানমার সেনাবাহিনীর বর্বরোচিত নিধনযজ্ঞে রাখাইনে ৫ হাজারেরও বেশি রোহিঙ্গা প্রাণ হারিয়েছে। অগ্নিসংযোগ-লুটতরাজ-ধর্ষণের মুখে প্রাণভয়ে পালিয়ে বাংলাদেশ আশ্রয় নিয়েছে ৫-৬ লাখের মতো রোহিঙ্গা।

নিউজ ডেস্ক
: আপডেট, বাংলাদেশ ০৫:০৩ পিএম, ০৮ অক্টোবর, ২০১৭ রোববার
ডিএইচ

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

‘ফিরে এসে কাজে যোগ দিতে পারবেন এসকে সিনহা’

প্রধান ...