Home / সম্পাদকীয় / দেশসেরা চাঁদপুর জেলা প্রশাসককে উষ্ণ অভিনন্দন

দেশসেরা চাঁদপুর জেলা প্রশাসককে উষ্ণ অভিনন্দন

দেশসেরা জেলা প্রশাসক চাঁদপুরের মাটি ও মানুষের কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে উন্নয়নে যে উৎসাহ ও উদ্দীপনা দেখিয়ে যাচ্ছেন, এতে আমরা অভিভূত। তার কার্যক্রমে সবার মনে এ ধারণা জন্মেছে যে, তিনি এ জেলারই সন্তান।

চাঁদপুরের আইসিটি সেক্টরে অসামান্য অবদানের জন্য তিনি সেরা জেলা প্রশাসক হিসেবে যে পদক ও সুনাম অর্জন করেছেন তাতেও চাঁদপুরবাসী গর্বিত।

ইতোমধ্যে তিনি তাঁর এ কৃতিত্ব চাঁদপুরবাসীকে উৎসর্গ করেছেন। কৃতিত্বকে জেলা প্রশাসনের সকল কর্মকর্তা ও চাঁদপুরবাসীকে ভাগ করে দিয়েছেন।

গত ৬ নভেম্বর চাঁদপুর প্রেস ক্লাবে ‘ব্র্যান্ডিং বিষয়ে তার মহতী উদ্যোগের শুভ সূচনা ‘জেলা ব্র্যান্ডিং বিষয়ে গণমাধ্যম কর্মীদের ভূমিকা শীর্ষক স্বপ্নমেলার মাধ্যমে সর্বস্তরের গণমাধ্যমকর্মীদের আনুষ্ঠানিকভাবে যা জানিয়েছেন। তা’ সত্যিই প্রশংসনীয় উদ্যোগ ।

জেলা প্রশাসক মো.আব্দুস সবুর মন্ডল তার বক্তব্যে সেদিন বলেছিলেন, ‘আমার কর্মজীবনে ২২ বছর ধরে যা করেনি দেড় বছরে চাঁদপুরের জন্যে তা’করেছি। আমি অভিভূত; চাঁদপুরের মানুষ আমাকে বিশ্বাস করেছে। চাঁদপুরকে আপন মনে করে নিয়েছি। কোনো কিছুকে আপন মনে করলে তার কল্যাণে কাজ করা যায় ।

চাঁদপুরে অনেক কৃতিমান পুরুষ, চাঁদপুরের সম্পদ, ঐতিহ্য ও সুনাম রয়েছে তা ব্র্যান্ডিংয়ের জন্যে তুলে ধরতে হবে। চাঁদপুরে মাদক নিয়ন্ত্রণ হয়েছে, নির্মূল হয়নি। এটা করতে সময় লাগবে । বাল্যবিবাহ ৯০ ভাগ বন্ধ করা সম্ভব হয়েছে। বাকিটা খুব সহসাই হবে । প্রায় অবৈধ ৮ হাজার যানবাহন এখন বন্ধ । চাঁদপুরে জনমত ও পরিবেশ তৈরি হয়েছে। সকল দলের মানুষকে এর সাথে সম্পৃক্ত হতে হবে। স্বপ্নের মেলা বাস্তবায়নে স্বাস্থ্য ও শিক্ষা নিশ্চিত করতে হবে ।

এবার ইলিশের বিপ্লব ঘটেছে । শুধু ব্র্যান্ড হিসেবে ইলিশকেই বিবেচনা না করে চাঁদপুরের আরো অন্য কিছুকে এর সাথে সম্পৃক্ত করতে হবে।

এদিকে মা ইলিশ রক্ষা কর্মসূচি সফলভাবে সম্পন্ন করায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে চাঁদপুর জেলা প্রশাসকের ভূয়সী প্রশংসা ও ধন্যবাদ জানিয়ে চিঠি দেয়া হয়েছে।

গত ২১ নভেম্বর চাঁদপুর জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে চিঠিটি সোস্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ করা হয়।

২০ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মহাপরিচালক (প্রশাসন) কবির বিন আনোয়ারের স্বাক্ষরিত ওই চিঠিতে বলা হয়, দেশের ক্রমবর্ধমান আমিষের চাহিদা পূরণের ক্ষেত্রে মৎস্য সম্পদ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। বিশেষ করে ইলিশ মাছ, একদিকে যেমন মৎস্যখাতের গুরুত্বপূর্ণ অংশ অন্যদিকে জাতীয় ঐতিহ্যের প্রতীক। তাই ইলিশ মাছের উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে সরকার যথোপযুক্ত কার্যক্রম গ্রহণ করেছে।’

চিঠিতে চাঁদপুর জেলা প্রশাসক আব্দুস সবুর মন্ডলের প্রশংসা করে বলা হয়, ‘জেলা প্রশাসক হিসেবে মো. আব্দুস সবুর মন্ডল মা ইলিশ রক্ষা কর্মসূচি বাস্তবায়নের মাধ্যমে দেশের ইলিশের নিরাপদ প্রজনন নিশ্চিত করার মাধ্যমে প্রশংসনীয় ভূমিকা রেখেছেন। তাঁর নেতৃত্বে জেলা প্রশাসন, বিভিন্ন দপ্তর ও উপজেলা পর্যায়ের কর্মকর্তাগণের সম্মিলিত প্রয়াসে দেশে ইলিশের উৎপাদন বৃদ্ধি পেয়েছে।’

মা ইলিশ রক্ষায় জেলা প্রশাসনের আন্তরিক প্রয়াস ও কার্যক্রমের জন্য সরকারের পক্ষ থেকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানিয়ে বলা হয়, ‘চাঁদপুর জেলা প্রশাসক আব্দুস সবুর মন্ডলের সুযোগ্য নেতৃত্বে উন্নয়ন কার্যক্রমের সকল ক্ষেত্রে জেলা প্রশাসন চাঁদপুরে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে যাবে।’

এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়, এ মৌসুমে মা ইলিশ রক্ষায় পুরো চাঁদপুরবাসী ছিল সোচ্চার । সাধারণ জনগণ, সুশীল সমাজ, মুক্তিযোদ্ধা, সাংবাদিক, সরকারি কর্মকর্তা, জপ্রতিনিধি, জেলে সম্প্রদায়, প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়াসহ সবার ভূমিকা ছিল অসাধারণ। আর এ কারণে এ বারের মা ইলিশ রক্ষার কর্মসূচি সফল হয়েছিলো। বিষয়টি সরকারের নজরে আসে। সে জন্য সরকার জেলা প্রশাসন, চাঁদপুরের মাধ্যমে পুরো চাঁদপুরবাসীকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।’

চিঠিটি পেয়ে চাঁদপুর জেলা প্রশাসক আব্দুস সবুর মন্ডল এক মন্তব্যে জানিয়েছেন, ‘এ ধন্যবাদ ডিসির একার নয়, সংশ্লিষ্ট সকলের। ধন্যবাদ, যারা মা ইলিশ রক্ষায় কাজ করেছেন তাদের সকলের।’

আমরা আশাবাদী, চাঁদপুরের জেলা প্রশাসকের মহতী উদ্যোগকে চাঁদপুরের গণমাধ্যমকর্মীসহ সর্বস্তরের মানুষ সার্বিক সহযোগিতা দিয়ে তা’ বাস্তবায়নে এগিয়ে আসবেন। তাই জেলা প্রশাসক মো.আব্দুল সবুর মন্ডলকে চাঁদপুর টাইমস পরিবারের পক্ষে উষ্ণ অভিনন্দন।

সম্পাদকীয় : আপডেট, বাংলাদেশ সময় ৬:০০ পিএম, ২২ নভেম্বর ২০১৬, মঙ্গলবার
এজি/ডিএইচ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

বাইতুল কাদের জামে মসজিদে ইফতার ও দোয়া

চাঁদপুর ...