Home / আন্তর্জাতিক / প্রবাস / মজলিস-এ-শূরার সাথে বাংলাদেশ-সৌদি মৈত্রী গ্রুপের বৈঠক

মজলিস-এ-শূরার সাথে বাংলাদেশ-সৌদি মৈত্রী গ্রুপের বৈঠক

সৌদি আরবের সর্ব্বোচ্চ নীতি নির্ধারণী ফোরাম মজলিস-এ-শূরার সদস্যদের সাথে বাংলাদেশ-সৌদি আরব সংসদীয় মৈত্রী গ্রুপের সাথে সোমবার (৭ নভেম্বর) বৈঠক হয়েছে ।

সৌদি মজলিস-এ-শূরা ভবনে বাংলাদেশ সৌদি আরব সংসদীয় মৈত্রী গ্রুপের সভাপতি সংসদ সদস্য প্রফেসর আবদুল্লাহ আল হারবি এবং অন্যান্য সদস্যবৃন্দ (মোট সাতজন) সংসদ সদস্যের সাথে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করেন।

বৈঠককালে উভয় পক্ষ বাংলাদেশ ও সৌদি আরবের দ্বিপাক্ষিক সকল বিষয়ে আলোচনা করেন। বিশেষ করে, দক্ষ জনশক্তি, উপযুক্ত ভাষাজ্ঞান ও সৌদি সংস্কৃতি বিষয়ে প্রশিক্ষণ এবং শ্রমিকদের সৌদি আরবে পাঠানোর পূর্বে অপরাধপ্রবণ কোনো বাংলাদেশিকে প্রেরণ না করার ব্যাপারে আলোচনা করা হয়।

বি এইচ হারুন বৈঠকে উল্লেখ করেন যে, ‘মাননীয় পধধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নের্তৃত্বে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক ও সামাজিক ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ উন্নয়ন হয়েছে। শিক্ষার মান বেড়েছে এবং অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ৭.১১% এবং মাথাপিছু আয় প্রায় ১৪০০ ডলার এ উন্নীত হয়েছে।’

বি এইচ হারুন সৌদি সংসদ সদস্যদের মাধ্যমে সৌদি সরকারকে আরও অধিকসংখ্যক শ্রমিক নিয়োগের আহবান জানান এবং পরবর্তী হজ্বে বাংলাদেশের জন্য বর্তমান কোটা বাড়ানোর অনুরোধ করেন। তিনি ব্যবসা বানিজ্য ও বিনিয়োগ বৃদ্ধিরও আহ্বান জানান। বংলাদেশের জনগণ সৌদি আরবকে শুধু একটি মুসলিম রাষ্ট্র হিসেবেই দেখে না বরং সৌদি আরবকে মুসলিম বিশ্বের নেতা মনে করে।’

তিনি সৌদি মজলিশ-এ-শূরার মাননীয় ̄স্পীকার মহোদয়ের ২০১৩ সালে বাংলাদেশ সফরের প্রসঙ্গ উল্লেখ করে বলেন, এই সফরের ফলে দু’দেশের সংসদের মধ্যে সম্পর্ক আরও বৃদ্ধি পেয়েছে।

বেঠক শেষে মজলিশ-এ-শূরা কর্তৃক আয়োজিত একটি মধ্যহ্ন ভোজে প্রতিনিধি দল যোগদান করেন।

এর আগে সফরের অংশ হিসেবে প্রতিনিধি দল ৬ নভেম্বর সকাল ১০.৩০ মিনিটে সৌদি আরবের শ্রম ও সমাজ উন্নয়ন বিষয়ক মন্ত্রী মোফরেজ আল হুকবানী এর সাথে সাক্ষাৎ করেন যেখানে, দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক বিষয়ক শ্রম উপ মন্ত্রী যায়েদ আল সায়েগ, শ্রম মন্ত্রণালয়ের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক বিষয়ক মহাপরিচালক মোহাম্মদ সালেহ বিন আল সারেখ ও অন্যান্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্হিত ছিলেন।

বৈঠকে বাংলাদেশ হতে অধিক সংখ্যক পুরুষ ও মহিলা গৃহকর্মী নিয়োগের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে অত্যন্ত আন্তরিক ও খোলামেলা আলোচনা হয়। মহিলা গৃহকর্মীদের নিরাপত্তা বিধানে গৃহকর্মী ও গৃহকর্তা উভয়ের ন্যায্য অধিকার নিশ্চিত করতে প্রয়োজনীয় সকল প্রকার ব্যবস্হা নেয়া হচ্ছে এবং গৃহীত ব্যবস্হার আরো উন্নয়নে ও সহযোগিতার ক্ষেত্রে আরো প্রসারিত করতে দু’দেশ এক সাথে কাজ করবে মর্মে সৌদি শ্রম ও সমাজ বিষয়ক মন্ত্রী সংসদীয় প্রতিনিধি দলকে জানান।

পুরুষ কর্মী নিয়োগের ক্ষেত্রে অভিবাসন ব্যয় হ্রাস এর বিষয়ে সৌদি সরকারের কঠোর অবস্হানের বিষয়টি মন্ত্রী র্পুনব্যক্ত করে উভয় দেশের একসাথে কাজ করার জন্য আহবান জানান।

তিনি এ ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় সকল প্রকার সহযোগিতার আশ্বাস দেন। মন্ত্রী আরো জানান ভিসা ট্রেডিংকে তার দেশ মানব পাচার হিসাবে বিবেচনা করে এবং একাজে জড়িতদের বিরুদ্ধে অত্যন্ত কঠোর আইনানুগ ব্যবস্হা গ্রহণে সৌদি সরকার বদ্ধপরিকর। সুনির্দিষ্ট অভিযোগের প্রেক্ষিতে কঠোর আইনগত পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে মর্মে তিনি প্রতিনিধি দলকে জানান।

প্রতিনিধিদল ৬ নভেম্বর সন্ধ্যায় বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত গোলাম মসীহ্ এর আমন্ত্রনে বাংলাদেশ হাউজে প্রবাসী বংলাদেশীদের সাথে এক মতবিনিময় সভায় অংশগ্রহণ করেন।

সেখানে সকল বিষয়ে বিশেষ করে প্রবাসী বাংলাদেশীদের সকল ধরনের সুযোগ-সুবিধা ও সমস্যা সম্পর্কে অবহিত হন এবং এইসব সমস্যা সমাধানের জন্য জাতীয় সংসদের মাধ্যমে সরকারের কাছে পেশ করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্হা নেয়ার ব্যপারে আশ্বাস প্রদান করা হয়।

প্রতিনিধিদল বাংলাদেশী নারী গৃহকর্মীদের বিভিন্ন সমস্যা সম্পর্কে অবহিত হন এবং এই ব্যপারেও প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহনের ব্যপারে আশ্বাস প্রদান করা হয়।

রাষ্ট্রদূতের বাস ভবন বাংলাদেশ হাউজে রাষ্ট্রদূত গোলাম মসীহ কর্তৃক আয়োজিত বাংলাদেশ কমিউনিটির বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গের সাথে সৌদি বাংলাদেশ সংসদীয় মৈত্রী প্রতিনিধি দলের এক মতবিনিময় সভায় তারা একথা জানান ।

এসময় প্রবাসীদের পক্ষ থেকে মতবিনিময় করেন, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী নুরুউদ্দিন মোল্লা, ইঞ্জিঃ মোয়াজ্জেম হোসেন, চিকিৎসক আরিফুর রহমান, মোঃ জাকির হোসেন, চিকিৎসক কাজী মাসুদুর রহমান, আব্দুস সালাম, ডাঃ শাহ আলম, আকবর হোসেন, বাংলা স্কুলের চেয়ারম্যান ডাঃ জাকিউল ইসলাম, জেদ্দা প্রবাসী মো. ইউসুফ মাহমুদ ফরাজি, অধ্যাপক ড. রেজাউল করিমসহ আরো অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

প্রতিনিধি দল ০৮ ও ০৯ নভেম্বর জেদ্দায় এবং মক্কায় ওআইসি মহাসচিব এবং সৌদি হজ্ব ও উমরাহ বিষয়ক মন্ত্রীর সাথে সাক্ষাৎ করার কথা রয়েছে। প্রতিনিধিদল আগামীকাল ৭ নভেম্বর ২০১৬ সৌদি ধর্ম বিষয়ক প্রতি মন্ত্রীর সাথে সাক্ষাৎ করে দু’দেশের মধ্যে হজ্ব ও ইসলামী শিক্ষার সহযোগিতার ব্যপারে আলোচনা করবেন।

প্রতিনিধি দল পবিত্র উমরাহ পালনের জন্য ৭ নভেম্বর ২০১৬ তারিখ মক্কা সফর করছেন এবং এরপর জিয়ারাহ এর উদ্দেশ্যে মদীনা সফর করবেন।

About The Author

প্রতিবেদক- সাগর চৌধুরী, সৌদি আরব করেসপন্ডেন্ট
শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

রাখাইনে নির্মাণাধীন বন্দরের ৭০ ভাগ মালিকানা পেতে যাচ্ছে চীন

মিয়ানমারের ...