Home / উপজেলা সংবাদ / কচুয়া / কচুয়ায় গৃহবধূকে ‘আটকে রেখে’ নির্যাতন

কচুয়ায় গৃহবধূকে ‘আটকে রেখে’ নির্যাতন

চাঁদপুর কচুয়া উপজেলার সালমা বেগম (২৫) নামের এক গৃহবধূকে প্রায় ৫ মাস ধরে বাপের বাড়ি আসতে না দিয়ে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে।

রবিবার (৮ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় সালমা বেগমকে কচুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য কুমিল্লার বাগিচাগাঁও ডায়াবেটিক হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

হাজীগঞ্জ উপজেলার তারাপাল্লা গ্রামের মৃত ছিদ্দিকুর রহমানের কন্যা সালমার সাথে প্রায় দু’বছর পূর্বে কচুয়া উপজেলার মনপুরা গ্রামের আব্দুর রহিমের পুত্র এমরান হোসেনের সাথে বিয়ে হয়।

সালমার হতদরিদ্র মা রিনা বেগম জানান, মেয়ের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে বিয়ের সময় নগদ ১ লক্ষ টাকা, আসবাবপত্র, গহনাসহ মূল্যমান আসবাবপত্র তুলে দেই জামাইর হাতে। কিন্তু পাষন্ড জামাই ও তার পরিবারের এতো কিছুতেও মন ভরেনি। কারণে অকারণে আরো টাকা চেয়ে তাকে মারধর করে পৃত্রালয়ে আসতে না দিয়ে দিনের পর দিন বিনা চিকিৎসায় স্বামীর বাড়িতে আটকে রাখে।

এ অবস্থায় রবিবার সন্ধ্যায় স্থানীয়দের সহায়তায় সালমা বেগমকে কচুয়া হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়।

সালমা বেগমের ভাই ফারুক জানায়, আমার বোন বর্তমানে প্রায় মৃত্যু শয্যায় রয়েছে। কিন্তু তার স্বামী পক্ষ উন্নত চিকিৎসা না করে বাড়িতে নিয়ে আসার পাঁয়তারা করছে।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত সালমার স্বামী এমরান মিয়া জানান, সালমাকে পূর্বে বেশ কয়েকবার চিকিৎসা দেয়া হয়েছে, এখনো চিকিৎসা চলছে।

জিসান আহমেদ নান্নু কচুয়া
।। আপডটে, বাংলাদশে সময় ০৮ : ৩৭ পিএম, ৯ জানুয়ারি ২০১৭ সোমবার
এইউ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

‘রাজনীতি’ ক্যাটাগরিতে স্বর্ণপদক পাচ্ছেন ডা. দীপু মনি

সমৃদ্ধ ...