Home / আরো / তথ্য প্রযুক্তি / পানিও মিলছে এটিএম বুথের মাধ্যমে !

পানিও মিলছে এটিএম বুথের মাধ্যমে !

টাকা নয়, পানির এটিএম বুথ!

ব্যাংকিং ব্যবস্থায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে আসছে এটিএম বুথ। যার মাধ্যমে গ্রাহকরা যেকোনো জায়গা থেকে চটজলদি টাকা তুলতে পারছেন। তবে এবার খাবার পানিও মিলছে এটিএম বুথের মাধ্যমে। নির্ধারিত বুথে এটিএম কার্ড ঢুকালেই পাইপ থেকে বেরিয়ে আসবে পানি। রাজধানী ঢাকাতেই এমন দুটি এটিএম বসানো হয়েছে, যেখানে টাকা নয়, পাওয়া যায় বিশুদ্ধ পানি। প্রিপেইড কার্ড দিয়ে গ্রাহকেরা যেকোনো সময় সেখান থেকে বিশুদ্ধ পানি সংগ্রহ করতে পারছেন।

রাজধানীর ফকিরাপুল পানির পাম্পে ওই এটিএম বুথ বসিয়েছে ঢাকা ওয়াসা। আর এটি নির্মাণে সহযোগিতা করেছে ডেনমার্কের একটি প্রতিষ্ঠান গ্রুন্ডফোজ( Grundfos)। বুথে এটিএম আছে দুটি। সেখানে গভীর নলকূপের সাহায্যে তোলা পানি প্রতি লিটার বিক্রি করা হচ্ছে ৪০ পয়সায়। সেখান থেকে পানি নিতে হলে ২০০ টাকা ফেরতযোগ্য জামানত দিয়ে একটি কার্ড নিতে হবে। এ জন্য গ্রাহকের জাতীয় পরিচয়পত্রের অনুলিপি ও দুই কপি ছবি লাগবে। এরপর চাহিদা অনুযায়ী কার্ডে টাকা রিচার্জ করতে হয়। সর্বনিম্ন এক টাকা থেকে সর্বোচ্চ এক লাখ টাকা পর্যন্ত রিচার্জ করা যায়।

এটিএমে কার্ড ঢোকানোর পর নির্ধারিত বোতাম চাপলে পানি পড়তে শুরু করবে। পানি নেওয়া শেষে কার্ডটি সরিয়ে ফেললে পানি আসাও বন্ধ হয়ে যাবে।

ঢাকা ওয়াসা সূত্রে জানা গেছে, রাজধানীর ফকিরাপুল ছাড়াও মুগদাতেও আরেকটি বুথের কাজ চলমান রয়েছে। ঢাকা ওয়াসার পাইলট প্রকল্পের আওতাধীন এরকম আরও ২০টি বুথ হবে রাজধানীতে।

ফকিরাপুল পানির পাম্পের এই বুথটির দেখভাল করছেন মো. জুয়েল নামের এক কর্মী। জানতে চাইলে তিনি সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, গত বছরের ৬ অক্টোবর এটি উদ্বোধন করা হয়। এ এলাকার মানুষের পানির সমস্যা সমাধানে প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত এই বুথ খোলা থাকে।

এটিএম বুথে কার্ড ঢুকিয়ে পানি সংগ্রহ করছেন এক গ্রাহক। ছবি: সংগ্রহীতএটিএম বুথে কার্ড ঢুকিয়ে পানি সংগ্রহ করছেন এক গ্রাহক।

জানা গেছে, প্রতিদিন প্রায় ৪০০ মানুষ এই বুথ থেকে পানি ক্রয় করে থাকেন। বিকেলের দিকে এখানে মানুষের ভিড় বাড়তে থাকে। প্রতি লিটার পনির দাম রাখা হচ্ছে ৪০ পয়সা করে। বর্তমানে ১ হাজার ২ জন কার্ডধারী এই বুথ থেকে খাবার পানি সংগ্রহ করছেন।

নিউজ ডেস্ক : আপডেট, বাংলাদেশ সময় ১২:০১ পি.এম, ১৯ জুন ২০১৭,সোমবার
ইব্রাহীম জুয়েল

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

দেশে ২ হাজার ৮ শ’র অধিক পত্রিকা বের হচ্ছে

তথ্যমন্ত্রী ...